ওয়ারলক

5.00 গড় রেটিং - 1 ভোট
বাড়তি নাম: Warlock
প্রকাশক: রোদেলা প্রকাশনী
বিষয়: অনুবাদ, উপন্যাস, থ্রিলার ও অ্যাডভেঞ্চার, রহস্য
লেখক:
পৃষ্ঠাসমূহ: 543
আইএসবিএন: 9789848975060
ভাষা: বাংলা
ধরণ: পিডিএফ
অনুবাদক: শাহজাহান মানিক

কাহিনীর অন্যতম প্রধান চরিত্র টাইটা। প্রথম জীবনে ক্রীতদাস থাকলেও নিজ মেধা আর যোগ্যতায় স্থাপত্য, যাদুবিদ্যা, যুদ্ধবিদ্যা আর চিকিৎসা শাস্ত্রে মহাপন্ডিত হয়ে ওঠে সে। ফারাও ট্যামোস তার গুণমুগ্ধতায় এবং আনুগত্যে তাকে দাসত্ব থেকে মুক্তি দেন (রিভার গড দ্রষ্টব্য)। প্রিয়তমা রানী লস্ট্রিসের মৃত্যুর পর টাইটা উত্তর আফ্রিকার মরুভূমিতে চলে যায় এবং গুপ্ত জ্ঞ্যানের চর্চায় নিমজ্জিত হয়। দিনের পর দিন তপস্যা তাকে দেয় আধ্যাত্মিক শক্তি। পরিণত করে একজন ওয়ারলক-এ। টাইটা হয়ে ওঠে গোটা মিশরের সবচেয়ে সম্মানিত ব্যক্তি।

মিশরের ফারাও তখন ট্যামোস। ফারাও এর প্রধান শত্রু হিকসস গোত্র। নিম্নরাজ্যে শক্তিশালী হয়ে উঠেছে হিকসসরা। তাদের দমন করতে সেনাবাহিনী নিয়ে যুদ্ধযাত্রা করেন ফারাও। লর্ড নাজা তার অন্যতম প্রিয় বন্ধু ও প্রধান উপদেষ্টা। রাজ্যক্ষমতার লোভে লর্ড নাজা গোপনে হাত মিলায় হিকসসদের সাথে। যুদ্ধক্ষেত্রে ফারাও ট্যামোসকে লর্ড নাজা নিজের হাতে খুন করে এবং ছড়িয়ে দেয় - ফারাও খুন হয়েছেন হিকসসদের হাতে। পূর্ব পরিকল্পনা মত সেনাবাহীনি নিয়ে ¬রাজধানীতে ফেরত আসে নাজা। ফারাও এর একমাত্র ছেলে নেফার সেটি’র বয়স মাত্র চোদ্দ বছর। নেফার সেটিকে ফারাও এবং তার অল্প বয়স বিবেচনায় নিজেকে রাজপ্রতিভূ হিসাবে নিজেকে ঘোষণা দেয় নাজা; - ক্ষমতা নিয়ে নেয় নিজের হাতে। নেফার সেটি ফারাও হলেও কার্যত সে হয়ে পরে গৃহবন্দি এবং নাজা’র হাতের পুতুল।

যুগ যুগ ধরে ফারাওদের অনুগত টাইটা এহেন বিপদ থেকে ফারাও এবং মিশরকে বাঁচাতে এগিয়ে আসে। প্রথমেই নিজেকে লর্ড নাজা’র প্রতি অনুগত হিসাবে প্রমান করে সে। অপেক্ষা করতে থাকে সুযোগের।

এদিকে নিম্ন রাজ্যের হিকসসরা আবারো এগিয়ে আসতে শুরু করে উচ্চরাজ্য দখলের জন্য। সন্ধির প্রস্তাব নিয়ে তাদের রাজা অ্যাপেপি’র কাছে পাঠানো হয় টাইটাকে। সন্ধির প্রস্তাবে রাজি হয়ে রাজা অ্যাপেপি তার পরিবার ও সভাসদদের নিয়ে হাজির হন মিশরের উচ্চরাজ্যে বিস্তারিত আলোচনা করতে। এই উপলক্ষে রাজা অ্যাপেপির ছোট মেয়ে মিনটাকার সাথে দেখা হয় নেফার সেটির। তারা প্রেমে পড়ে একে অপরের। সন্ধির বন্ধনকে আরও শক্ত করতে নিজের ছোট মেয়ে মিনটাকার সাথে নেফার সেটির বিয়ের প্রস্তাব দেন রাজা অ্যাপেপি। রাজি না হয়ে কোন উপায় ছিলনা নাজা’র।

রাজা অ্যাপেপির মেয়ে মিনকাটাকে বিয়ে করতে চাইতো লর্ড টর্ক - হিকসসদের একজন উদ্ধত, উচ্চাকাঙ্ক্ষী যোদ্ধা। সুতরাং নেফার সেটির সাথে মিনটাকার বিয়ের প্রস্তাব তার বুকে প্রতিশোধের বাসনা জাগিয়ে তোলে। সন্ধির অনুষ্ঠান থেকে ফেরত আসার আগে সবাই মিলে সিংহ শিকারে যান তারা। সেখানে সিংহের আঘাতে মারাত্মক জখম হন নেফার সেটি। শিকার শেষে হিকসস রাজ্যে ফেরত আসার পথে জাহাজে আগুন লাগিয়ে অ্যাপেপি ও তার পুরো পরিবারকে পুড়িয়ে মারে লর্ড টর্ক। বাঁচিয়ে রাখে শুধু মিনটাকাকে। এরপর নিজেকে হিকসসদের ফারাও হিসাবে ঘোষণা দেয় সে এবং জোর করে বিয়ে করে মিনটাকাকে।

এদিকে শিকার করতে গিয়ে আহত ফারাও নেফার সেটিকে খুন করার পরিকল্পনা করে লর্ড নাজা। অর্ধমৃত নেফার সেটি বিছানায় শুয়ে অপেক্ষা করতে থাকে মৃত্যুর।

এমনি করে শ্বাসরুদ্ধকর ঘাত প্রতিঘাতে এগিয়ে চলে কাহিনী। বিছানায় অর্ধমৃতের মত শুয়ে থাকা নেফার সেটি কি পারবে নিজেকে সাক্ষাত মৃত্যু থেকে বাঁচাতে? মিনটাকাকেই বা কিভাবে উদ্ধার করবে সে? "ওয়ারলক" টাইটা কি পারবে তার প্রজ্ঞা আর যাদুবিদ্যা দিয়ে মিশর কে মিথ্যার হাত থেকে রক্ষা করতে? টর্কের সেনাবাহিনী থেকে কিভাবে রক্ষা পাবে তারা? মিশরের ক্ষমতায় জেঁকে বসা লর্ড নাজা’র হাত থেকে কিভাবে পুনর্দখল করবে মিশরের সাম্রাজ্য? অত্যন্ত সুন্দর এবং সাবলীল ভাবে সে কাহিনী বর্ণিত হয়েছে এই বইয়ে।

রিভিউস

আবশ্যিক তথ্যগুলো * দিয়ে চিহ্নিত করা। আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না।