মা

5.00 গড় রেটিং - 1 ভোট
বাড়তি নাম: Maa
প্রকাশক: সময় প্রকাশন
বিষয়: মুক্তিযুদ্ধের উপন্যাস, উপন্যাস
লেখক:
পৃষ্ঠাসমূহ: 150
আইএসবিএন: 9844584221
ভাষা: বাংলা
ধরণ: পিডিএফ
পৃথিবীর মধ্যে এক অক্ষরের সবচেয়ে সুন্দর শব্দটি হল 'মা'। আনিসুল হকের এই বইটি আপনার মনে এমন প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করবে, যেন বইটি পড়ে আপনি উপলদ্ধি করতে পারবেন যে, মায়ের মত নিঃস্বার্থ মানুষ আর নেই। বইয়ের বাস্তব এই ঘটনাটির প্রেক্ষাপট ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ। শহিদ আজাদের মাকে নিয়ে লেখা। আজাদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে ধনী স্বামীকে ফেলে চলে আসেন যাযাবর জীবনযাপনে। স্বপ্ন একটিই, আজাদ একদিন অনেক বড় হবে। একসময় মুক্তিযুদ্ধ শুরু হয়ে যায়। জাহানারা ইমামের ছেলে রুমির সাথে সেও যায় মুক্তিযুদ্ধে। কিন্তু শেষ পর্যায়ে এসে সে ধরা পড়ে। পাকিস্তানিরা তাকে আটক করে রেখে ভয়াবহ নির্যাতন করে। কিন্তু তার মা ঘরে বসে থাকতে পারে না। একসময় ছেলের সাথে দেখা হয়। দেখেন, ছেলের কোন বিছানা নেই। মেঝেতে ঘুমায়। ভাল কোন খাবার নেই। খালি শুকনো রুটি খাওয়ায়। মা, ছেলের এ বেহাল দশা সহ্য করতে পারেন না। ছেলেকে জিজ্ঞাসা করেন সে কি খেতে চায়। ছেলে বলে। মা বাড়িতে ফিরে এসে সারা দিন, সারা রাত ছেলের পছন্দের খাবার রান্না করেন। কিন্তু পরদিন গিয়ে দেখেন, তার ছেলে নেই। পাকিস্তানিরা তাকে অন্য কোথাও সরিয়ে ফেলেছে। মা দিশেহারা হয়ে যান। ছেলের খোঁজ করেন সারা দেশে। কিন্তু খোঁজ মেলে না। একসময় দেশ স্বাধীন হয়। কিন্তু আজাদকে খুঁজে পাওয়া যায় না। সবাই তার মাকে বলে যুদ্ধে সে শহিদ হয়েছে। কিন্তু মা তা মানতে নারাজ। যতদিন বেঁচে ছিলেন, কখনো খাটে শোননি। মেঝেতে শুয়েছেন। শুকনো রুটি খেয়েছেন। ভাত মুখে দেন নি। কারন আজাদকে পাকিস্তানিরা এই অবস্থায় রেখেছিল। একসময় তিনি বুঝতে পারেন, আজাদ আসলেই শহিদ হয়েছে। মৃত্যুর পর তার কবরের পাশে তার নিজের নাম লেখা হয় নি। তার ইচ্ছানুযায়ী লেখা হয়েছিল 'শহিদ আজাদের মা'।

রিভিউস

আবশ্যিক তথ্যগুলো * দিয়ে চিহ্নিত করা। আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না।