নিশীথিনী

4.00 গড় রেটিং - 1 ভোট
বাড়তি নাম: Nishithini
সিরিজ: মিসির আলি সিরিজ
প্রকাশক: প্রতীক প্রকাশনা সংস্থা
বিষয়: উপন্যাস, রহস্য, ভৌতিক ও অতিপ্রাকৃত
লেখক:
পৃষ্ঠাসমূহ: 161
ভাষা: বাংলা
ধরণ: পিডিএফ
মিসির আলী সিরিজের বই। "নিশীথিনী" হচ্ছে "দেবী" এর দ্বিতীয় পর্ব। রহস্য এবং আধিভৌতিক টাইপের বই। রাণুর মৃত্যুর পর নীলুর মধ্যে রানুর ছায়া পড়ে, নীলু রাণুর অতিপ্রাকৃত ক্ষমতা অর্জন করে। যে দেবী রানুর মধ্যে বাস করত সে নীলুর শরীরে ঢুকে পড়ে - যা মিশির আলীকে বিষ্মিত করে, কিন্তু তিনি বিশ্বাস করেন না। তবে এ গল্প ফিরোজকে নিয়ে। ফিরোজ মোহনগঞ্জে তার বন্ধু আজমলের বাড়ী বেড়াতে গিয়ে অপ্রকৃতিস্থ হয়ে ফিরে আসে। কারণ অজ্ঞাত। হঠাৎ হঠাৎ সে হিংস্র হয়ে পড়ে। তার মাথায় খুন চেপে যায়। হিংস্র অবস্থায় তার কাছে একটি মানুষ আসে, তার সাথে কথা বলে। মিশির আলীর টেপ রেকর্ডারে তার আওয়াজও ধরা পড়ে। ফিরোজের সেকেন্ড পার্সোনালিটি - ছোট চৌধুরী। হানিফা মিশির আলীর বাড়ীর কাজের মেয়ে। এক রাত্রে জ্বরের ঘোরে সে ইংরাজীতে কথা বলে উঠলে মিশির আলী বুঝতে পারে সে বড় ঘরের মেয়ে। তিনি তার বন্ধু পুলিশ কমিশনার সাজ্জাদের সাহায্য চান। তিনি হানিফা আর ফিরোজ দুজনের ব্যাপারেই খোঁজ শুরু করেন। মিশির আলী ফিরোজের রহস্য উদ্ধারে মোহনগঞ্জে যান। আর এদিকে ফিরোজ একের পর এক হত্যাকান্ড ঘটাতে থাকে। নীলু বুঝতে পারে ফিরোজ এবার মিশির আলীকে হত্যা করবে। মিশির আলীকে কেন্দ্র করে নীলু আর ফিরোজ - এবার লড়াই তাদের মধ্যে; দেবী আর ছোট চৌধুরীর মধ্যে - যাদের অস্তিত্ব মিশীর আলীর কাছে নেই। সত্যিই কী নেই?

রিভিউস

আবশ্যিক তথ্যগুলো * দিয়ে চিহ্নিত করা। আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না।