সাহারা

5.00 গড় রেটিং - 1 ভোট
বাড়তি নাম: Sahara
প্রকাশক: নির্বাচিতা প্রকাশন
বিষয়: উপন্যাস, থ্রিলার ও অ্যাডভেঞ্চার, অনুবাদ
লেখক:
পৃষ্ঠাসমূহ: 286
ভাষা: বাংলা
ধরণ: পিডিএফ
অনুবাদক: মখদুম আহমেদ

গল্পের শুরুটা হয় বহু আগে আমেরিকার এক গৃহযুদ্ধ দিয়ে। টেক্সাস নামক এক বিদ্রোহী জাহাজ আমেরিকার এক গুরুত্বপূর্ণ বন্দীকে নিয়ে পালিয়ে যায়। হারিয়ে যায় তারা। কোথায় জাহাজটা হারায় তা কেউ জানেনা। একসময় ইতিহাস হয়ে থাকে এই জাহাজ ও রহস্য হয়ে থাকে এই জাহাজের বন্দী।

১৯৩১সাল। সারাবিশ্বে নামকামানো অষ্ট্রেলিয়ান মহিলা বৈমানিক কিটি ম্যানক হারিয়ে গেলেন সাহারায়। বিমান নিয়ে সাহারা পাড়ি জমিয়েছিলেন। তার প্লেন কোথায় ক্র্যাশ হলো, কোথায় সে পতিত হলো তা কেউ জানেনা। শিগ্রই দুঃসাহসী কিটি ম্যানক পরিণত হলো স্মৃতিতে।

বর্তমান সময়। ইভা রোয়েস বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একজন প্রতিনিধি হিসেবে মালিতে এসেছে। তাদের গবেষনায় উঠে এসেছে মালির অভ্যন্তরীন নদীতে বিষাক্ত রাসায়নিক পর্দাথ মিশ্রিত হচ্ছে। যারফলে দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত হচ্ছে সাধারন মানুষ। তবে অজানা কোনো এক কারনে তারওপর হামলা হয়। সৌভাগ্যবশত নুমা কমান্ডার ডার্ক পিট তাকে উদ্ধার করে। নীলনদে গুপ্তধন খোজায় ব্যস্ত ডার্ককে সেসময় আরেকটি কাজে মালিতে পাঠানো হয়।

ডার্ক ও ইভার কাজের যোগসূত্র অনেকটা একই। যা চিন্তায় ফেলে দেয় মালির স্বৈরশাসক জাতিব কাজেম ও ফরাসী ব্যবসায়ী ইভস মার্সাদেকে। তারা চান না ওদের তদন্ত কিংবা গবেষনা কোনোটা সফল হোক। যারফলে ডার্কদের ওপর হামলা হয়। কিন্তু সে হামলায় মারা যায় জাতিব কাজেমের ভাতিজা। এতে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে জেনারেল জাতিব কাজেম। এদিকে ডার্করা জানেনা ওরা যেই রহস্যের কাছে যাচ্ছে সেই একই রহস্যের কারনে মানুষখেকো হয়ে উঠেছে আফ্রিকার একটি গ্রামের মানুষ। তারওপর আরো দুটো রহস্য গুপ্ত রয়ে গেছে সেখানে দীর্ঘদিন।

রিভিউস

আবশ্যিক তথ্যগুলো * দিয়ে চিহ্নিত করা। আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না।