অমানুষ

4.00 গড় রেটিং - 1 ভোট
বাড়তি নাম: Amanush
প্রকাশক: অন্বেষা প্রকাশন
বিষয়: উপন্যাস, সমকালীন উপন্যাস
লেখক:
পৃষ্ঠাসমূহ: 98
আইএসবিএন: 9847011600727
ভাষা: বাংলা
ধরণ: পিডিএফ

ইতালির এক শহরের কাহিনী। যেখানে অন্যান্যবারের তুলনায় শিশু অপহরণ খুব বেড়ে গিয়েছে। সব অভিভাববকরাই বাচ্চাদের নিয়ে চিন্তিত। যাদের একটু অর্থ ব্যাবস্থা ভালো তারা তাদের ছেলে-মেয়েকে বাইরের দেশে পড়তে পাঠাচ্ছে। আর তা নাহলে বডিগার্ডের ব্যবস্থা করছে।

তেমনই গল্পের প্রধান চরিত্র যাকে নিয়েই এই গল্পের কাহিনী 'এ্যানি' তাকে নিয়েও তার মা বেশ চিন্তিত। তাই এ্যানিকে তার মা স্কুলে যেতে দিচ্ছে না। বাড়িতেই তার পড়াশোনা করতে হচ্ছে।

এ্যানির মায়ের নাম রুন। ভীষণ সুন্দরী মহিলা। আর তার স্বামীর নাম ভিকি। ভিকি একজন ব্যবসায়ী। তাদের এই ব্যাবসাটা তিনপুরুষ ধরে চলে আসলেও ভিকির অবস্থা বর্তমানে খুব খারাপ যাচ্ছে। কিন্তু সেদিকে কোন ভ্রুক্ষেপই নেই স্ত্রী রুনের। সে তার মতোই খরচ করে যাচ্ছে।

এসব নিয়ে রুনের উপর যথেষ্ট বিরক্ত ভিকি। এছাড়া আরো একটা ব্যপারেও বিরক্ত। তা হলো, রুনের এক চাচাতো ভাই আছে এতরা। এতরাকে সহ্য না করতে পারলেও ভিকি কিছু বলতে পারে না এতরা কিংবা রুনকে। কারণ ভিকিকে বিভিন্ন সময় ব্যাবসায়ে পরামর্শ এতরাই দেয়। আর রুনের সম্মতিতে এতরা রুনকে ব্যবহার করে। অবশ্য তা ভিকি জানে না।

যাই হোক, রুন এ্যানির জন্য বডিগার্ড রাখতে একসময় ব্যস্ত হয়ে পড়ে। বাধ্য হয়ে এতরার পরামর্শ মতো এক বাংলাদেশি সৈনিক জামশেদকে রাখা হয় এ্যানির বডিগার্ড। এ্যানি খুব খুশি হয় এই ভেবে যে, সে একটা সঙ্গী পেয়েছে। কিন্তু জামশেদ খুবই গম্ভীর।

তবে একটা সময় এ্যানির আর জামশেদের খুব ভালো সম্পর্ক হয়। কিন্তু ভালো সময়টা খুব বেশিদিন থাকে না। ভিকির অবস্থা খুব খারাপ হতে থাকে। এতরার পরামর্শ মতো এ্যানির নামে বীমা করায় ভিকি।

একটা সময় এতরার পরামর্শ মতোই আবার এ্যানিকে কিডন্যাপও করায়য় বীমার টাকা পাওয়ার জন্য। কিন্তু যেভাবে কাজ করা হবে ভাবা হয় সেভাবে কিডন্যাপ করা যায় না এ্যানিকে। কাহিনী মোড় নেয় অন্যদিকে। কি হয় তবে শেষ পর্যন্ত?

রিভিউস

আবশ্যিক তথ্যগুলো * দিয়ে চিহ্নিত করা। আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না।