বুদ্ধি বেচার সওদাগর

5.00 গড় রেটিং - 1 ভোট
বাড়তি নাম: Buddhi Bechar Sowdagar
প্রকাশক: অঞ্জলি প্রকাশনী
বিষয়: শিশু-কিশোর, রূপকথা, উপকথা ও লোককাহিনী, গল্প
লেখক:
পৃষ্ঠাসমূহ: 124
আইএসবিএন: 8187114142
ভাষা: বাংলা
ধরণ: পিডিএফ

শিশু কিশোরদের জন্য লেখা কিছু মজার গল্প নিয়ে এই বইটি। মোট ১২টা গল্প আছে। এর মধ্যে আমার ভালো লেগেছে - রঞ্জনের গল্প, রূপবতীর বিয়ে, বুদ্ধি বেচার সওদাগর, আলো আর আঁধার, টুলুরাজকুমারী আর টুবান।

  • বিদঘুটে বাড়ির গল্প: পিকো টুম্পা দের বাড়িতে উদ্ভট সব কাণ্ড কারখানা ঘটতে থাকে। তবে এই কাণ্ড কার খানার পিছনে কোনো মানুষ বা অশরীরী কিছুর যোগ নাই, এর পিছনে মূল হল পশুপাখি। এই বাড়িতে কুকুর সুইসাইড করে, মাছ জলে ডুবে মারা যায়, আরও কত কি - এদের নিয়েই মজার গল্প।
  • রুবাইয়ের বারান্দা আর বনপাহাড়ি: রুবাই ও বুবাই দুই ভাই বোন। রুবাই বড়। রুবাই মনে মনে তার কল্পনার তুলি দিয়ে নানার গল্প আঁকতে থাকে। এই নিয়েই গল্প।
  • কায়াক: কৌশিকী নামের একটি ছোটো মেয়ে ও তার পরিবারের নিয়ে গল্প। তার বাবা কর্মসূত্রে বিদেশে থাকেন,তাই তাদের কেও অর্থাৎ কৌশিকী ও তার মাকেও নিয়ে যাবার ব্যবস্থা করে।কিন্তু যাবার আগে তার ঠাকুমাকে বৃদ্ধাশ্রমে পাঠিয়ে দেয়।
  • রঞ্জনের গল্প: রঞ্জনরা পাঁচ ভাই। বাকি দাদা ভাইরা পড়াশোনায় ভালো হলেও রঞ্জন খুব কাঁচা। তখন তার মা রঞ্জনের ভবিষ্যতের ভার নেয়। তাকে নিপুণ হাতে রান্না শেখাতে শুরু করে, আর সেই রান্না শিখে রঞ্জন নিজের পায়ে দাঁড়ায়। এমনকি রান্নার দক্ষতা নিয়ে সে বিদেশে পাড়ি দেয়।
  • সবুরে মেওয়া ফলে: জুবিলি মিত্র নামে এক মহিলা একটা নম্বর ডায়াল করে, ওপাশে ফোন রিসিভও করে। কিন্তু সে মনে আর কিছুতেই করতে পারে না যে কেনো ফোন করেছে, কাকে ফোন করেছে, কিজন্য করেছে। ওপাশের জনকে সবুর করতে বলে তারপর অনেকক্ষণ কেটে যায় তবু মনে পড়ে না। শেষপর্যন্ত ফোন রাখার সময় মনে পড়ে।
  • শুক্তিমতী: কোলাহল পর্বতে স্বর্গ থেকে এক সুন্দরী কন্যা (নাম শুক্তিমতী) নেমে আসে। কোলাহল পর্বত যুবকের বেশে এসে তাকে বিবাহ করে।তাদের একটি কন্যা হয়, তারও বিবাহ দেয়। শুক্তিমতী স্বর্গ কন্যা তাই তাকে স্বর্গে ফিরে যেতে হয় কিন্তু সেখানে বেশিদিন থাকতে পারে না, ফিরে আসে আবার কোলাহল পর্বতের বুকে।
  • রূপবতীর বিয়ে: এক রাজার এক রুপসী রাজকন্যা, তার যেমন রূপ তেমনি অহঙ্কার। তার বিয়ের জন্য স্বয়ংবর সভার আয়োজন করা হলে সে সবাই কে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করে বিদায় করে দেয়।রাজামশাই রেগে সিদ্ধান্ত নেয় সকালে ঘুম থেকে উঠে যার মুখ দেখবে, তার হাতেই মেয়েকে সঁপে দেবেন। শেষপর্যন্ত কার সাথে বিয়ে হয় রাজকন্যার?
  • বুদ্ধি বেচার সওদাগর: এক নাপিতের একমাত্র ছেলে মন্টু। কথায় তার সাথে পেরে ওঠা দায়, তার শুধু খেলা খেলা খেলা। নাপিত তাকে কাজকর্মের ব্যাপারে বললে সে গুরুত্বই দেয় না।একদিন সে এক বুদ্ধি বার করে। হাতে একটা দোকান দেয় , নাম - "এখানে সুবুদ্ধি বিক্রয় করা হয়।" তার সেই কারবার কতদূর এগোয় ? বুদ্ধি বেচার ব্যবসা থেকে কিভাবেই বা হলো সে রাজমন্ত্রী?
  • টাপুর টুপুর আর বনদেবী: টাপুর টুপুর দুই স্বামী স্ত্রী। টুপুর হঠাৎ মারা গেলে টাপুরের খুব মন খারাপ হয়। তখন বনদেবী টুপুরকে ফিরিয়ে দেবার কথা বলে। নানা পরীক্ষা পেরিয়ে শেষপর্যন্ত টাপুর টুপুর-কে ফিরে পায়।
  • আলো আর আঁধার: এক কাঠুরিয়ার দুই নাতনী - দিবা আর রাতি। দুজনেই খুব ভালো মনের মেয়ে।অনেক কষ্টে তাদের সংসার চলে। চাঁদের বুড়ির ছোটো ছেলে ও বড়ো ছেলের সাথে তাদের কিভাবে পরিচয় হয়, বিয়ে হয় এই নিয়ে গল্প।খুব মিষ্টি একটা রূপকথার গল্প।
  • হাবু গাবু সাবু: গ্রামের নাম পাঁচমিশেলী। সেখানে বাস করে তিন বন্ধু হাবু গাবু সাবু। তিনজনেই অশিক্ষিত, বোকা। গ্রামের মোড়ল তাদের রাজার কাছে পাঠায়। পথে যেতে যেতে তিনজনে একটা মনগড়া ছড়া বানায়,সেটা রাজাকে দেয়। সেই সামান্য ছড়া কিভাবে রাজার প্রাণ বাঁচায় এবং শেষে হাবু গাবু সাবু এদের কি হয় সেটা নিয়েই গল্প।
  • টুলুরাজকুমারী আর টুবান: সুন্দরী গুনবতী টুলু রাজকুমারীর বিয়ের জন্য পাত্র খোঁজ চলছে।কিন্তু রাজপুত্র, কোটাল পুত্র যারাই টুলু রাজ্যে আসে তারাই উধাও হয়ে যায়। শেষপর্যন্ত টুবান অনেক বিপদ পেরিয়ে রাজকন্যেকে বিয়ে করে।

রিভিউস

আবশ্যিক তথ্যগুলো * দিয়ে চিহ্নিত করা। আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না।