সত্যকথন

5.00 গড় রেটিং - 1 ভোট
বাড়তি নাম: Sotto Kothon
প্রকাশক: সীরাত পাবলিকেশন
বিষয়: বিবিধ, ইসলামিক
লেখক:
পৃষ্ঠাসমূহ: 787
আইএসবিএন: 9789843429995
ভাষা: বাংলা
ধরণ: পিডিএফ

জাদুর কাঠির সন্ধান রূপকথার গল্পে পাওয়া যায়, বাস্তবে মেলে না। এটা কখনোই সম্ভব না যে, কেউ কিছু বলবে আর পৃথিবীর সবাই তা মেনে নিবে। নূহ আলাইহিস সালাম নয় শতাব্দীর বেশি সময় ধরে তাঁর সম্প্রদায়কে সত্যের দিকে আহ্বান করেছেন। সালিহ আলাইহিস সালাম তাঁর সম্প্রদায়কে আল্লাহর ইচ্ছায় চাক্ষুস প্রমাণ দেখিয়েছেন, ঠিক যেমনভাবে তারা চেয়েছিল সেভাবেই। ফিরাউনকে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা'আলা একটি-দু'টি না, একের পর এক নয়টি সাইন দেখিয়েছিলেন। বানী ইস্রাইলের মাথার উপর তূর পর্বত তুলে ধরে তাদের কাছ থেকে অঙ্গীকার গ্রহন করেছিলেন। আসমান থেকে তাদের জন্য মান্না ওয়া সালওয়া অবতীর্ন করেছিলেন... কিন্তু মানুষ অস্বীকার করেছে। আল্লাহর কালাম শোনার পরও, আল্লাহ্‌র নিদর্শন চোখের সামনে দেখার পরও, মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। যুগে যুগে, অধিকাংশ মানুষ এভাবেই চোখ বন্ধ করে থেকেছে। সত্যকে ভুলে থেকেছে। তবে যারা ফিতরাতকে ভুলে যায়নি তারা ঠিকই নবী-রাসূলদের চিনেছে। যাদের অন্তরটা মরে যায়নি তারা ঠিকই বুঝতে পেরেছে এ সত্য এসেছে তাদের রবের পক্ষ থেকে। বিনয়ে তাদের চোখ অশ্রুসিক্ত হয়েছে। এটা সত্যসন্ধানীদের জন্য। মিথ্যায় জর্জরিত হয়ে যারা সংশয়ে পড়েছে তাদের জন্য। আমাদের কাছেও জাদুর কাঠি নেই। সবটুকু অন্ধকার দূর করা আমাদের পক্ষে সম্ভব না। এটা অন্ধকারের বাদুড়দের জন্যে না। তারা আলো সইতে পারবে না এটাই তো স্বাভাবিক। যাদের অন্তরে ব্যাধি, যারা তর্কের খাতিরে তর্ক করে, হন্য হয়ে কিভাবে তর্কে জেতার জন্য নতুন নতুন অজুহাত খুঁজে বেড়ায়, যারা দেখেও দেখে না, যারা শুনেও না, যাদের অন্তরে মোহর পড়ে গেছে ম্যাজিকালি তাদের জন্য ‘সর্বরোগের ঔষধ’ জাতীয় কোন টোটকা আমাদের কাছে নেই। তবে আমাদের কাছে সত্য আছে। সেই সত্য যা আসমান ও যমীনের মালিক আমাদের জানিয়ে দিয়েছেন, কিন্তু অবহেলা ভরে আমরা অনেকেই তা বিস্মৃত হয়েছি। আমরা চেষ্টা করছি সেই সত্যের আলো পৌছে দেবার। আর তাই অনলাইনের গন্ডি পেড়িয়ে ছাপার অক্ষরে আপনাদের সামনে এবার আসছে সত্যকথন, বিইযনিল্লাহ। কিন্তু ‘সত্য’ নামক আলোর সেই মশালটাকে বয়ে নিতে হবে আপনাদেরকেই। তবেই সম্ভব অন্ধকারকে অপসারিত করা। একটি নিঃসঙ্গ প্রদীপ থেকে লক্ষ প্রদীপ জ্বালানো সম্ভব। আবার তাকে নিঃসঙ্গে নিভে যেতে দেখাও সম্ভব। স্ফুলিঙ্গ দাবানলে পরিণত হবে কি না তার অনেকটুকুই নির্ভর করছে আপনাদের উপর।

রিভিউস

আবশ্যিক তথ্যগুলো * দিয়ে চিহ্নিত করা। আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না।