আট কুঠুরি নয় দরজা

5.00 গড় রেটিং - 1 ভোট
বাড়তি নাম: Aat Kuthori Noy Doroja
প্রকাশক: আনন্দ পাবলিশার্স
বিষয়: উপন্যাস, চিরায়ত উপন্যাস
লেখক:
পৃষ্ঠাসমূহ: 227
আইএসবিএন: 9788172152628
ভাষা: বাংলা
ধরণ: পিডিএফ

আট কুঠুরি নয় দরজা মানে কিন্তু এখানে আটটি ঘর আর নয়টি দরজাকে বুঝানো হয় নি। তাহলে এখানে কি বুঝানো হলো?

মানুষের মোট গ্রন্থি আটটি। পিটুইটারি, থাইমাস, থাইরয়েড, প্যরা থাইরয়েড প্রভৃতি। এই শরীরটা বেঁচে আছে এই আটটি গ্রন্থির ভেতর দিয়ে হর্মোন সিক্রিয়েশন করার জন্য। আর এই আটটি গ্রন্থির সাথে যুক্ত শরীরের নয়টি দ্বার। আর তিনতলা হলো শরীরের মস্তিষ্ক, কোমর থেকে শরীরের ঊর্দ্ধভাগ এবং নিম্নভাগ। চোখ, মুখ, নাক, কান প্রভৃতি নয়টা দ্বার নিয়ে ছড়িয়ে আছে যা স্নায়ুশক্তি নিয়ন্ত্রণ করে।

এই বইয়ের কাহিনী এক পাহাড়ি রাজ্যকে নিয়ে। যেখানে শাসনব্যবস্থা একনায়কতন্ত্র। পুলিশকে জনগণ প্রচন্ড ঘৃণা করলেও তা প্রকাশ করতে পারে না। পুলিশ কোন অন্যায় করলেও তার প্রতিবাদ করার সাহস নেই কারো। তবুও কিছু মানুষ প্রতিবাদ করতে শুরু করে। শুরু করে বিপ্লব। আর এই বিপ্লবের মূল নায়ক আকাশলাল।

পুলিশ হন্য হয়ে খুজঁতে থাকে এই আকাশলালকে। কোথাও পায় না। হটাৎ আকাশলাল নিজেই ধরা দেয়। পুলিশি হেফাজতে থেকে মারা যায় আকাশলাল। জনগণ এই মৃত্যু সংবাদে ক্ষেপে উঠবে ভেবে রাতের আধাঁরে কবর দিয়ে দেয় পুলিশকিন্তু সেই রাতেই চুরি হয়ে যায় আকাশলালের লাশ। কিন্তু মৃতদেহ কেন চুরি হবে? তবে কি এই মৃত্যু সাজানো কোন নাটক?

রিভিউস

আবশ্যিক তথ্যগুলো * দিয়ে চিহ্নিত করা। আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না।