প্রথম প্রতিশ্রুতি

5.00 গড় রেটিং - 1 ভোট
বাড়তি নাম: Pratham Pratishruti
সিরিজ: সত্যবতী ট্রিলজি সিরিজ
প্রকাশক: মিত্র ও ঘোষ পাবলিশার্স
বিষয়: উপন্যাস, চিরায়ত উপন্যাস
লেখক:
পৃষ্ঠাসমূহ: 639
আইএসবিএন: 8172932065
ভাষা: বাংলা
ধরণ: পিডিএফ
নিত্যানন্দপুর এক অজপাড়াগাঁ, যে গাঁয়ে একটি এগারো বছরের শিশুকন্যা সেই সংস্কারের শৃঙ্খল ভেঙ্গে বেড়িয়ে আসে, জানাতে চাই সবাইকে নারীরা মানুষ। নারী থেকে মানুষ হবার সেই কন্যার আমৃত্য অপরাজেয় যুদ্ধের গল্প এই বইটি পিতা ব্রাক্ষ্মণ রামকালী কবিরাজ একমাত্র সন্তান সত্যবতীকে মাত্র আট বছর বয়সে বিয়ে দিয়ে গৌরীদান করেছিলেন। কিন্তু তখনকার নিয়ম অনুসারে বিয়ের পর সংসারেরউপযুক্ত বয়সের অপেক্ষায় সত্যবতী পিতার কাছেই ছিল। কবিরাজ রামকালী নিজের পরিবারে আর গ্রামের সহস্র অসহায় মানুষের জন্য ছিলেন ত্রাতা। সত্যবতীর অনুপ্রেরণা-উৎসাহের কেন্দ্রবিন্দুই তার পিতা! শ্বশুরবাড়ি এসে সত্যবতী হলো দিশেহারা। নিষ্ঠুর-লোভী-মনুষ্যত্বহীন শ্বাশুড়ী এলোকেশীআর শ্বশুর নীলাম্বরকে দেখে সত্যবতী একটু প্রতিবাদী হয়ে ওঠে, যার কারনে সে প্রতিক্ষেত্রেই তাদের ক্ষোভের শিকার হতে থাকে। কিন্তু অসহায়ের সহায় ও কখনও কখনও থাকে, সত্যের স্বামী নবকুমার, নরম গোছের মানুষ!!যে সদায় সত্যকে সাহায্য করেছে! আমাদের এই সত্যবতীর সত্যবতী হয়ে ওঠার পেছনে এই নবকুমারের কিছু ভূমিকা আছেই, বইটি না পড়লে বুঝা যাবে না!! সময় বয়ে যায়! সত্যবতী পরিবর্তন ঘটে, কন্যা থেকে স্ত্রী আবার স্ত্রী থেকে মা। বারবার ভেঙ্গে গড়তে গড়তে নতুন রূপে নতুন ব্যক্তিত্বে সত্যবতী কে পাই আমরা। আধুনিক চিন্তা লালন করা এই নারী সন্তানদের সুশিক্ষায় আলোকিত করতে নবকুমারকে নিয়ে কলকাতায় আসে সত্যবতী। কিন্তু সত্য ভেবেছিল তার যুদ্ধের এই বুঝি শেষ... কিন্তু কলকাতায় এসে সত্যবতী যুদ্ধ শেষ হয় না বরং শুরু হয়। একমাত্র কন্যা সুবর্ণলতা। যাকে ঘিরে ক্লান্ত প্রাণ সত্যবতী জীবনের সবথেকে বড় স্বপ্ন দেখতে শুরু করে। নিজের একমাত্র কন্যাটিকে শিক্ষিত করা, নারী থেকে মানুষ হিসেবে গড়তে? যা তখনকার সমাজের চোখ মহাপাপ। কিন্তু সফল হয়েছিল সত্যবতী? পেরেছিল অসাধ্য সাধন করে স্বপ্ন পূরণ করতে? নারীদের নিয়ে সমাজ যে খেলা খেলে, সেই খেলায় জয়ী কে?

রিভিউস

আবশ্যিক তথ্যগুলো * দিয়ে চিহ্নিত করা। আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশ করা হবে না।